46th-blog

সঠিকভাবে হাতকে জীবাণুমুক্ত রাখবেন যেভাবে

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক পরার পাশাপাশি নিয়মিত হাত ধোয়ার কোন বিকল্প নেই। প্রাণঘাতী এ ভাইরাস প্রতিনিয়ত ছড়াচ্ছে আমাদের হাতের মাধ্যমে। তাই আমাদের হাতকে রাখতে হবে জীবাণুমুক্ত। তাই সঠিকভাবে আমরা হাত ধুচ্ছি কিনা, এ বিষয়ে আমাদের আরও বেশি সচেতন হওয়া উচিৎ।

তাই হাত ধোয়ার ক্ষেত্রে যে ভুলগুলো আমরা করতে পারি সে বিষয়ে আসুন সচেতন হওয়ার চেষ্টা করি।

১। ঘনঘন হাত ধোয়া

আমরা ঘন ঘন হাত ধুচ্ছি তো? করোনাভাইরাস সাধারণত যেকোনো বস্তুর পৃষ্ঠতলে অবস্থান করে। খুব সহজেই পৃষ্ঠতল থেকে আমাদের হাতে, এরপর হাত থেকে মুখ না নাক দিয়ে আমাদের ভেতরে প্রবেশ করে। প্রতিদিন আমরা হাত দিয়ে কত কাজই না করি। তাই আমাদের যেকোনো কিছু ধরার পর ঘনঘন সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিতে হবে। তবে ঘরের বাইরে সাবান পানি দিয়ে হাত ধোয়া অসম্ভব হলে সেক্ষেত্রে আমরা স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে পারি। যদিও স্যানিটাইজারের চেয়ে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বেশি কার্যকরী। 

২। ২০-৩০ সেকেন্ড সময় ধরে হাত ধুতে হবে

আমরা অনেকেই হাত ধোয়ার ক্ষেত্রে তাড়াহুড়া করে থাকি। কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে আমাদের হাত ধোয়া হতে যায়। যার ফলে আমাদের হাতে জীবাণু লেগেই থাকে। তাই হাতকে জীবাণুমুক্ত রাখার জন্য পুরো হাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে সাবান বা লিকুইড সোপ নিয়ে হাতের উপরে-নিচে, আঙুলের ফাঁকে ২০- ৩০ সেকেন্ড সময় ধরে ভালো করে মেখে নিতে হবে। এরপর পানি দিয়ে পরিষ্কার করে ধুয়ে নিতে হবে। ভালো করে হাত ধোয়ার ফলে করোনাভাইরাসের পাশাপাশি ডায়রিয়া, ঠান্ডা-কাশির মতো রোগের আক্রমণ থেকে আমরা রেহাই পাব।

৩। হাত ধোয়ার ক্ষেত্রে যেসকল বিষয়ে সচেতনতা অবলম্বন করতে হবে

১। যেকোন পৃষ্ঠতলের সাথে আপনার হাতের সংস্পর্শে আসার সাথে সাথে হাত সাবান দিয়ে ঘষে ঘষে ধুতে হবে।

২। বাইরে থেকে ঘরে ফেরার সাথে সাথে আপনার হাত সাবান দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। ঘরে ঢুকার সাথে সাথে বাইরের পোশাক পরিবর্তন করতে হবে। বাইরে থেকে নিয়ে আসা ব্যাগ বা বাজারকে জীবাণুমুক্ত করুন।

৩। চোখ, মুখ এবং নাক ধরার আগে পরিষ্কার করে হাত ধুয়ে নিন।

৪। হাঁচি বা কাশি দেয়ার সময় টিস্যু বা কাপড় দিয়ে মুখ ঢেকে নিন। টিস্যু বা কাপড় যদি সেই মুহূর্তে উপস্থিত না থাকে, তবে হাত দিয়ে মুখ ঢেকে হাঁচি বা কাশি দিতে হবে। এরপর কোন কিছু ধরার আগে সাথে সাথে সাবান দিয়ে ভাল করে হাত ধুয়ে নিতে হবে।

৫। দরজার হাতল এবং কলিংবেল স্পর্শ করার পর আপনার হাত ধোয়ার পাশাপাশি হাতল এবং কলিংবেলেরও জীবাণুমুক্ত করতে হবে।

৪। পরিষ্কার এবং শুকনো তোয়ালে দিয়ে ভেজা হাত মুছে নিতে হবে

আমরা অনেকেরই হাত ধোয়ার পর ভেজা হাত ভালো করে শুকনো করে মোছার অভ্যাস নেই। যার ফলে আমাদের হাতের ত্বকের ক্ষতিসাধন হয়ে থাকে। এছাড়াও ভেজা হাত থেকে বেশি জীবাণু ছড়ায় বিষয়টি আমাদের অনেকেরই অজানা। তাই এ বিষয়ে আমাদের একটু সচেতনতা অবলম্বন করা উচিৎ। পরিষ্কার করে হাত  ধুয়ে পরিষ্কার কাপড়, তোয়ালে কিংবা টিস্যু দিয়ে মুছে শুকিয়ে নেয়া উচিত।

করোনাভাইরাস হাত থেকে বাঁচতে আসুন আমরা সকলে সঠিক উপায়ে নিজেকে জীবাণুমুক্ত রাখি। সঠিকভাবে হাত ধুই। নিজে সুস্থ থাকি। অপরকে সুস্থ রাখি।

Leave A Comment

You must be logged in to post a comment