28th-blog

কাপড় আয়রন করার নিয়ম

কুঁচকানো পোশাকের তুলনায় কাপড় আয়রন বা ইস্ত্রি করে পরলে আমাদের সকলকেই সুন্দর এবং পরিপাটি লাগে। আয়রন করা পোশাক যেমন আমাদের সৌন্দর্য বর্ধন করে, তেমনি আমাদের মনকেও রাখে প্রফুল্ল। তবে অলসতার কারণে হোক, কিংবা হোক সঠিক উপায়ে কাপড় ইস্ত্রি করার অজ্ঞতার কারণে, আমরা অনেকেই কাপড় আয়রন করার ঝামেলা এড়িয়ে যেতে চাই। তবে আসুন আজ জেনে নেয়া যাক, কাপড় আয়রন করার কিছু সহজ নিয়ম। যা আপনার কাপড়ের সাথে আপনাকেও রাখবে পরিপাটি।

১। সিল্ক এবং পশমি বা সিনথেটিক কাপড় খুবই সেনসিটিভ। তাই এ জাতীয় কাপড় খুব সতর্কতার সাথে নিম্ন বা মাঝারি তাপে আয়রন বা ইস্ত্রি করতে হয়।

২। সুতি কাপড় মাঝারি বা উচ্চ তাপে আয়রন করা যাবে। বলতে গেলে সুতি কাপড় আয়রন করা সবচেয়ে বেশি সহজতর। 

৩। নতুন নতুন আয়রন করার ক্ষেত্রে আপনি সিল্ক বা পশমি কাপড়ের উপর পাতলা সুতি কাপড় দিয়ে আয়রন করতে পারেন। এতে আপনার পছন্দের কাপড়টি পুড়ে যাওয়ার আশংকা কমে যাবে। 

৪। আয়রন করার সময় কাপড়ে হালকা পানির ছিটিয়ে নিলে কাপড় ভালো ভাবে আয়রন করা যাবে। বর্তমানে কিছু আধুনিক প্রযুক্তির আয়রন পাওয়া যায় যার ভেতরে পানি ভরেই আয়রন করা যায়। এতে আলাদা করে পানি ছিটিয়ে দেয়ার ঝামেলা থাকে না। এবং কাপড়ও আয়রন হয় পরিপাটিভাবে।

৫। কাপড় সবসময় লম্বালম্বিভাবে আয়রন করা উচিৎ। এতে কাপড়ের ভাঁজ সঠিকভাবে আয়রন করা সম্ভব। গোল গোল করে আয়রন করলে কাপড়ের ক্ষতি হতে পারে।

৬। আরেকটি ইম্পরট্যান্ট টিপস যা আপনার কাজে আসতে পারে। কাপড় আয়রন করার সময় সবসময় উল্টো পাশে আয়রন করুন। কেননা ঘন ঘন আয়রন করার ফলে কাপড়ের রং ঝলসে বা ফেইড হয়ে যেতে পারে। কাপড়ের উল্টো পাশে iron করলে আপনার কাপড়ের উজ্জ্বলতা বজায় থাকবে। অতি সহজে রং ফেইড হবে না।

৭। Iron করা শেষে সুইচ বন্ধ করে গরম আয়রনটি হাতের নাগাল থেকে দূরে রাখুন। ঠাণ্ডা হয়ে যাওয়ার পর যথাস্থানে গুছিয়ে রাখুন।

আপনার কাপড়কে পরিপাটি রাখার জন্য Iron কিনতে পারেন Shobuy-থেকে। আপনার পছন্দের Iron-টি বাছাই করতে ভিজিট করুন Shobuy-এ।

Leave A Comment

You must be logged in to post a comment